বিপিএলের শেষ চার নিশ্চিত

আজ নিশ্চিত হয়ে গেছে শেষ চারে যাচ্ছে কোন দলগুলো। তবে এখনো অনেক হিসাব বাকি। কারণ শীর্ষ এই চার দলের জায়গা অদল–বদল হতে পারে—যার প্রভাব পড়বে দ্বিতীয় রাউন্ডে।আজ খুলনা টাইটানসকে হারিয়ে রংপুর রাইডার্স শেষ চার নিশ্চিত করেছে। একই সঙ্গে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল বিদায় নিশ্চিত করে দিয়েছে সিলেট সিক্সার্স ও রাজশাহী কিংসের। খুলনা, ঢাকা ডায়নামাইটস ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস আগেই শেষ চার নিশ্চিত করেছিল। কুমিল্লার শীর্ষে থাকাও নিশ্চিত, যদিও ২ ম্যাচ এখনো বাকি। ১০ ম্যাচে ৮ জয় নিয়ে তাদের পয়েন্ট ১৬। কিন্তু পরের তিনটি দলেরই অবস্থান পরিবর্তন হতে পারে।

দুইয়ে থাকা ঢাকার শেষ ম্যাচ রংপুরের সঙ্গে। ঢাকা জিতলে তাদের দুইয়ে থাকা নিশ্চিত হবে। তবে জিতলেও রংপুরের দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত নয়। কুমিল্লাকে নিজেদের শেষ ম্যাচে খুলনা হারাতে পারলে দুইয়ে চলে যাবে তারা। আর খুলনা হারলে দুইয়ে থাকা নিশ্চিত হবে রংপুরের।শীর্ষ দুটি দল দ্বিতীয় রাউন্ডে মুখোমুখি হবে প্রথম কোয়ালিফায়ারে। জয়ী দল ফাইনালে গেলেও হেরে যাওয়া দলটি আরও একটি সুযোগ পাবে ফাইনালে যাওয়ার। তৃতীয় ও চতুর্থ হওয়া দল দুটি মুখোমুখি হবে এলিমিনেটরে। হেরে যাওয়া দল বিদায় নেবে। আর জয়ী দল প্রথম কোয়ালিফায়ারে হেরে যাওয়া দলের বিপক্ষে খেলবে। এই ম্যাচের বিজয়ী দ্বিতীয় দল হিসেবে উঠবে ফাইনালে। ফরম্যাটটি আইপিএল বা বিপিএল দেখে অভ্যস্ত দলগুলোর কাছে চেনা।

এ কারণে পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুইয়ে থাকতে চাইবে খুলনা, রংপুর আর ঢাকা। জায়গা একটি, প্রতিদ্বন্দ্বী তিন দল। ফলে লড়াইটা এখনো জমজমাটই থাকছে। কাল বিরতির পর ৫ ও ৬ ডিসেম্বরে তাই চোখ রাখতে ভুলবেন না। দ্বিতীয় পর্বের খেলাগুলো হবে ৮ ও ১০ ডিসেম্বর। ১২ ডিসেম্বর ফাইনাল।

দল ম্যাচ জয় হার পরিত্যক্ত পয়েন্ট
কুমিল্লা ১০ ১৬
ঢাকা ১১ ১৩
খুলনা ১১ ১৩
রংপুর ১১ ১২
সিলেট ১১
রাজশাহী ১১
চিটাগং ১১

 

অধিনায়ক হিসেবে ৬ নম্বর ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড নিজের করে নিলেন কোহলি

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দিল্লি টেস্টের প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিকে ডবল সেঞ্চুরিতে রূপ দিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক। কোহলি ব্যাটিংয়ে নামলে পরিসংখ্যানবিদেরা সব সময় তটস্থ থাকেন। সেঞ্চুরিটি ডবলে পরিণত করে বরাবরের মতো রেকর্ড বইয়ের বেশ কিছু পাতা এলোমেলো করে দিয়েছেন। এটি তাঁর ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ দ্বিশতক।

টেস্ট ইতিহাসের সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে পরপর দুই টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করলেন বিরাট কোহলি। নাগপুরে দ্বিতীয় টেস্টে ২০৪ রান করেছিলেন তিনি। আজ দিল্লি টেস্টেও একই কাণ্ড। এই প্রতিবেদন লেখার সময় কোহলি ২২৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। প্রথম ভারতীয় ব্যাটসম্যান ও অধিনায়ক হিসেবে অনন্য এই মাইলফলক অর্জন করলেন তিনি।

টানা তিন টেস্টে সেঞ্চুরি ছাড়ানো ইনিংস খেললেন কোহলি। লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসেও সেঞ্চুরি করেছিলেন কোহলি। এই নিয়ে কোহলির সর্বশেষ তিনটি টেস্ট ইনিংস হলো ১০৪*, ২১৩, ও ২২৫*। অধিনায়ক হিসেবে এত দিন সবচেয়ে বেশি ৫টি ডবল সেঞ্চুরি ছিল ব্রায়ান লারার। কোহলি তাঁকে ছাড়িয়েছেন। তাঁর ডবলের সংখ্যা ৬। ভারতের বাকি সব টেস্ট ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত ডবল সেঞ্চুরির সংখ্যা ৪।

২০টি টেস্ট সেঞ্চুরি করতে ১০৫টি ইনিংস খেলতে হয়েছে কোহলিকে। টেস্ট ইতিহাসে এর চেয়ে দ্রুত ২০ সেঞ্চুরি করতে পেরেছেন মাত্র ৪ জন ব্যাটসম্যান। তাঁরা হলেন স্যার ডন ব্র্যাডম্যান (৫৫), সুনীল গাভাস্কার (৯৩), ম্যাথু হেইডেন (৯৫) ও স্টিভেন স্মিথ (৯৯)। টেস্টে ৫০০০ রান পূর্ণ হয়েছে তাঁর, গাভাস্কার, শচীন টেন্ডুলকার ও বীরেন্দর শেবাগের পর এটি ভারতের হয়ে তৃতীয় দ্রুততম।

৫ উইকেটে ৫০০ রান তুলে মধ্যাহ্ন বিরতিতে গিয়েছে ভারত। নাগপুরের মতো আরও একবারের ভারতের রানপাহাড়ে চাপা পড়তে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। ভারতকে আশা জোগাবে ইতিহাস। দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা মাঠে সর্বশেষ ১২ টেস্টের ১১টিতেই জয় পেয়েছেন তারা, হারেনি একবারও। ‘ঘরের ছেলে’র আরও একটি দুর্দান্ত টেস্ট ইনিংসের পর এই ম্যাচেও বড় জয়ের আশা তো ভারত করবেই।

২০১৮ সালের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের পর নতুন র‌্যাঙ্কিং ১৯২ তম স্থানে বাংলাদেশের

২০১৮ সালের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের পর নতুন র‌্যাঙ্কিং প্রকাশ করলো ফিফা। এতে ১৯২ তম স্থানে আছে বাংলাদেশের নাম।পয়েন্ট তালিকায় চার ধাপ এগিয়েছে দলটি।
১৯২ তম স্থানে বাংলাদেশের সঙ্গে আছে আরও তিনটি দল। এগুলো হলো কুক আইল্যান্ড, সামোয়া, আমেরিকান সামোয়া। পয়েন্ট তালিকার শেষের নামটি টোঙ্গা (২০৬)।

ক্রিকেটে সেরা দলগুলোর বেশিরভাগেরই অবস্থা করুণ। তালিকায় ১০৫-এ আছে ভারত। ২০০ তম অবস্থানে আছে শ্রীলঙ্কা। পাকিস্তানের অবস্থান ২০১। স্কটল্যান্ড (৩২), অস্ট্রেলিয়া (৩৯), দক্ষিণ আফ্রিকা (৮১), নিউজিল্যান্ড (১২২) আফগানিস্তান (১৪৭)।

পয়েন্ট তালিকায় সেরা পাঁচে আছে জার্মানি, ব্রাজিল, পর্তুগাল, আর্জেন্টিনা ও বেলজিয়াম। দুই ধাপ এগিয়ে ষষ্ঠ স্থানে বিশ্বকাপ জয়ী স্পেন। সপ্তম স্থানে পোল্যান্ড। অষ্টম স্থানে উঠেছে সুইজারল্যান্ড। নবম স্থানে ও এক ধাপ নেমে দশম স্থানে আছে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট কাটতে না পারা চিলি।

১১তম স্থানে নেমে গেছে পেরু। ডেনমার্ক সাত ধাপ এগিয়ে ১২তম স্থানে উঠেছে। আর ১৩তম স্থানে কলম্বিয়া। ইতালি আছে ১৪তম স্থানে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আজ্জুরিরা। তালিকায় ১৫তম স্থানটি ইংল্যান্ডের দখলে।